রবিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০ ইং | আশ্বিন ৫, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ০ সফর, ১৪৪২ হিজরি

বার্তাপ্রতিক্ষণ / সংবাদ / আন্তর্জাতিক / করোনার টিকা পেতে গরিবের ভরসা বিল গেটস

করোনার টিকা পেতে গরিবের ভরসা বিল গেটস

সর্বদাই অসহায়ের সহায় হয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। তাই করোনা আবহেও তার অন্যথা হল না। ইতিমধ্যেই করোনার প্রতিষেধক নির্মাণে গবেষণায় বিপুল পরিমাণে অর্থ দিয়ে সাহায্য করছেন তিনি। তবে এখানেই নিজেকে সীমাবদ্ধ করে রাখতে চান না। প্রতিষেধক নির্মিত হলে তা ছড়িয়ে দিতে চান বিশ্বের দরিদ্র দেশবাসীর মধ্যে।

গত শুক্রবার বিল গেটস বলেছেন, যদি কার্যকর টিকা পাওয়া যায় তবে বিশ্বের দরিদ্র মানুষগুলোকে তা সরবরাহের জন্য তিনি ও তার দাতব্য সংস্থা বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন থেকে ১৫ কোটি ডলার দান করবেন।

করোনাভাইরাসের প্রতিক্রিয়ায় বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধনী বিল গেটসের অন্যতম বৃহৎ প্রতিশ্রুতি এটি। দ্য গেটস ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে এ অর্থ বৃহত্তম টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেরাম ইনস্টিটিউটকে দেওয়া হচ্ছে। এ অর্থে ১০ কোটি ডোজ টিকা তৈরি করা হবে। প্রতি ডোজ টিকার দাম ধরা হতে পারে মাত্র ৩ মার্কিন ডলার।

গত দুই দশকে টিকা তৈরির ক্ষেত্রে শীর্ষ নেতৃত্ব দেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে এগিয়ে আছেন বিল গেটস। ভ্যাকসিন তৈরির প্রচেষ্টায় ইতিমধ্যে ৪০০ কোটি ডলার খরচ করেছেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরে বিল গেটস উদ্বেগ জানিয়ে বলছেন, ধনী দেশগুলো যদি অতিরিক্ত খরচ করে চিকিৎসাব্যবস্থা নিজেরা হস্তগত করে, তবে গরিব দেশগুলো চিকিৎসার অভাবে ধ্বংস হয়ে যাবে।

গেটস ফাউন্ডেশন করোনা ভাইরাস মহামারিতে এখন পর্যন্ত মোট ৫০ কোটি মার্কিন ডলার দান করেছে। এর মধ্যে গত শুক্রবার যে ১৫ কোটি ডলার দেওয়ার প্রতিশ্রুতি এসেছে তা মূলত সুদহীন ঋণ। ৫০ কোটি ডলারের অধিকাংশই ব্যয় হবে টিকা তৈরির বিভিন্ন খুঁটিনাটি কাজে।

বিল গেটস শুধু টিকা তৈরিতে অর্থ সাহায্যই করছেন না, তিনি টিকা তৈরিতে বৈষম্য না করার জন্য আওয়াজও তুলেছেন।

আরও পড়ুন

করোনামুক্ত হলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম

২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম করোনাভাইরাস থেকে আরোগ্য লাভ করেছেন। বর্তমানে... বিস্তারিত এখানে

কানাডার সাবেক প্রধানমন্ত্রী জন টার্নারের মৃত্যু

২০ সেপ্টেম্বর ২০২০

কানাডার সাবেক প্রধানমন্ত্রী জন টার্নার ১৯৮০ এর দশকে মাত্র ১১... বিস্তারিত এখানে