শনিবার, অগাস্ট ৮, ২০২০ ইং | শ্রাবণ ২৩, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৬ জ্বিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরি

বার্তাপ্রতিক্ষণ / লাইফস্টাইল / গ্লিসারিনের ব্যবহার

রূপচর্চায়

গ্লিসারিনের ব্যবহার

রূপচর্চায় গ্লিসারিনের ব্যবহার অনেক আগে থেকেই চলে আসছে। সাধারণত শীতকালে আমাদের বেশি প্রয়োজন হয় এই জিনিষটির। এছাড়া যেহেতু আর কদিন পরই আসছে শীতকাল, এই সময় যাদের ত্বক শুষ্ক তাদের অনেকেরই হাত-পায়ের ত্বক কিংবা ঠোঁট ফাটার প্রবণতা দেখা দেয়। তাই এর হাত থেকে বাঁচাতে আপনার খুব কাছের বন্ধু হতে পারে এই গ্লিসারিন।

তবে ময়েশ্চারাইজার হিসেবে গ্লিসারিন সহজলভ্য হলেও দীর্ঘদিন একটানা ব্যবহার করা উচিত নয়। এ ব্যাপারে আমাদের অবশ্যই লক্ষ রাখতে হবে। কেননা, দীর্ঘ সময় ধরে গ্লিসারিন বা গ্লিসারিন মেশানো কোনো প্রসাধনী ব্যবহার করা হলে ত্বক শুষ্ক হয়ে পড়তে পারে। চিকিৎসকেরা বলেন, গ্লিসারিন ব্যবহারের মিশ্র প্রতিক্রিয়া রয়েছে। একদিকে গ্লিসারিন পরিবেশ থেকে পানি শোষণ করে, যার ফলে ত্বক আর্দ্র ও কোমল হয়। আবার গ্লিসারিন ব্যবহারের একসময় যখন তা ধুয়ে ফেলা হয়, তখন এর সঙ্গে ত্বকের স্বাভাবিক ও অত্যন্ত প্রয়োজনীয় তেলজাতীয় উপাদান ধুয়ে যায়। এর ফলে ত্বকে শুষ্কতা দেখা দেওয়ার আশঙ্কা থাকে। গ্লিসারিন ত্বকের প্রয়োজনীয় তেলজাতীয় উপাদান শোষণ করে নেয় বলে এমনটা হয়। তাই প্রয়োজন ছাড়া সবসময় এটি ব্যবহার করা উচিৎ নয়।

তবে এ বিষয়ে রূপবিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন কখন বা কি অবস্থায় গ্লিসারিন ব্যবহার করবেন। তাঁরা বলেন, যাঁদের ত্বক শুষ্ক, তাঁরা সমপরিমাণ গ্লিসারিন, গোলাপজল ও জলপাই তেল একত্রে মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন। অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বকের ক্ষেত্রে এই মিশ্রণে গোলাপজলের পরিমাণটা অর্ধেক করে নিতে হবে।

এছাড়া ঠোঁট, হাত, পা এবং শরীরের অন্য যে অংশের ত্বক ফেটে যায়, রাতে ঘুমানোর আগে সেসব স্থানে গ্লিসারিন, জলপাই তেল ও গোলাপজলের মিশ্রণ লাগিয়ে নিতে পারেন। এসব স্থানে চাইলে সরাসরি গ্লিসারিনও মাখা যাবে। তবে মিশ্রণ ব্যবহার করাই ভালো। প্রয়োজনে নখের গোড়া বা কিউটিকলেও গ্লিসারিনের মিশ্রণ লাগাতে পারেন গোসলের পর। এটি ভালো কাজ দেয়।

তবে তৎক্ষণাৎ হাতের কাছে গোলাপজল না থাকলে গ্লিসারিনের সঙ্গে গোলাপজলের পরিবর্তে পানিও ব্যবহার করা যেতে পারে। কিন্তু মুখের ত্বকে গ্লিসারিন সরাসরি লাগানো উচিৎ নয়।

ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করতে এবং ঠোঁটে গোলাপি আভা আনতে গ্লিসারিন ও গোলাপের পাপড়ির সঙ্গে ২ থেকে ৩ ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে ঠোঁটে লাগাতে পারেন। অথবা বীটমূলের রস ও গ্লিসারিনের মিশ্রণ ব্যবহার করতে পারেন। এতে ঠোঁট গোলাপি হয়ে উঠবে এবং ঠোঁটের কালচে দাগ দূর হয়ে যাবে।অতিরিক্ত শুষ্ক মৌসুমে গ্লিসারিন ব্যবহার করা যেতে পারে। আর যাঁদের ত্বক অতিরিক্ত শুষ্ক, তাঁরাও এটি স্বল্প সময়ের জন্য ব্যবহার করতে পারেন। তবে একটানা অনেকদিন ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকুন।

আরও পড়ুন হেয়ার ড্রায়ারের নানাবিধ ব্যবহার

আরও পড়ুন

‘ব্ল্যাক কফি’র উপকারিতা

০৭ অগাস্ট ২০২০

পানীয় হিসেবে কফির নানা গুণাগুণ রয়েছে। কফিতে এমন উপাদান রয়েছে... বিস্তারিত এখানে

গ্যাস্ট্রিক থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার সহজ উপায়

০৪ অগাস্ট ২০২০

সাধারণত আমরা তিনবেলা খাবার খেয়ে থাকি। দুইবেলা খাবারের মাঝে বিরতির... বিস্তারিত এখানে