শুক্রবার, জুলাই ১০, ২০২০ ইং | আষাঢ় ২৬, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৭ জ্বিলকদ, ১৪৪১ হিজরি

বার্তাপ্রতিক্ষণ / স্বাস্থ্য বার্তা / দেহের জন্য উপকারী সূর্যমুখী তেল

সূর্যমুখী তেল

দেহের জন্য উপকারী সূর্যমুখী তেল

সূর্যমুখী তেল সূর্যমুখীর বীজ থেকে বের করা তেল হিসাবে সংজ্ঞায়িত করা যেতে পারে। প্রথম সূর্যমুখী হৃৎপিণ্ডটি আবিষ্কার করে হাজার হাজার বছর আগে আমেরিকানরা; তারা গবাদি পশুর খাদ্য হিসাবে এবং কখনও কখনও প্রসাধন জন্য ব্যবহার করা হয়, এবং তারপর বৃহৎ পরিসীমা চাষের জন্য বিশ্বের বাকি প্রবেশ।

সূর্যমুখীর তেল অন্যান্য সাধারণ তেলের চাইতে একটু আলাদা। এক গবেষণায় দেখা গেছে রান্নার জন্য সয়াবিন তেলের চাইতে সূর্যমুখী বীজ থেকে পাওয়া তেল দশগুণ বেশী পুষ্টিমান সমৃদ্ধ।

সূর্যমুখী তেলের প্রধান উপাদান হলো লিনোলিক এসিড।তেলটি পুষ্টি ও এন্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ হওয়ায়, ঔষধি ও প্রসাধনীর জন্য বিশ্বব্যাপী ব্যবহৃত হয়।

জেনে নিন স্বাস্থ্যগুণে অনন্য সূর্যমুখী তেলের উপকারিতা –

১। যারা ওজনের ভারে অস্থির, তাদের জন্য আছে সানফ্লাওয়ার তেল। এর অন্যতম ফ্যাটি এসিড দেহের চর্বি পোড়াতে কার্যকর ভূমিকা রাখে। এ কারণে স্বাস্থ্যসচেতনদের কাছে তেলটি খুবই জনপ্রিয়। খাদ্য তালিকা এদিক-সেদিক না করে শুধু সূর্যমুখী তেল ব্যবহার করে স্বাস্থ্যকর ওজন ধরে রাখা যায়।

২। প্রচুর পরিমাণে খাদ্যশক্তি থাকায় সূর্যমুখী বীজের তেল আমাদের দুর্বলতা কাটাতে কার্যকরী। আমাদের দেহের কার্যক্ষমতা বাড়াতে এবং দীর্ঘদিন কর্মক্ষম রাখতেও সূর্যমুখীর ভূমিকা অনন্য।

৩। সূর্যমুখী তেলে থাকা ম্যাগনেসিয়াম উপাদান আমাদের মানসিক চাপ দূর করে। মাইগ্রেনের সমস্যা এবং আমাদের মস্তিষ্ককে শান্ত রাখতে সাহায্য করে এই উপাদান।

৪। এই বীজে আছে ভিটামিন ই, যা শরীরের নানা রকম ব্যথা দূর করতে সহায়তা করে। সূর্যমুখী তেলে থাকা ম্যাগনেসিয়াম আমাদের মানসিক চাপ দূর করে।

৫। ত্বকের অকালে বুড়িয়ে যাওয়া এবং ক্ষয় রোধে এই তেল খুবই উপকারী। সূর্যমুখী বীজ আমাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে আরো জোরদার করে। হাড়ের জোড়ায় ব্যথা, গ্যাস্ট্রিক আলসার, হাঁপানি ইত্যাদি রোগ সারিয়ে তুলতে সূর্যমুখীর তেল খুবই কার্যকর।

৬। সূর্যমুখী বীজে আছে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টিঅক্সিডেণ্ট। প্রতিদিন ১/৪ কাপ সূর্যমুখী বীজ আমাদের হার্ট এর সমস্যা থেকে দূরে রাখে। এই বীজ আমাদের দেহের অপ্রয়োজনীয় কলেস্টরোল দূর করে আমাদের হার্টকে ভলো রাখে।

৭। সূর্যমুখী তেল বুকের মধ্য থেকে কফ অপসারণ, ঠান্ডা, ঠান্ডা এবং ঠান্ডা রোগের উপশম, এবং হাঁপানি আক্রান্ত হওয়া থেকে কাজ করে।

আরও পড়ুন

কাঁঠালের বিচির জাদুকরী যত গুণ

১০ জুলাই ২০২০

ফলের বাজারে অন্যতম আকর্ষণ হয়ে থাকে কাঁঠাল।প্রোটিন, ভিটামিন ও পটাসিয়ামসমৃদ্ধ... বিস্তারিত এখানে

বাজারের ৫ কোম্পানির পানি পানের উপযোগী নয়ঃ বিএসটিআই

২১ জানুয়ারি ২০১৯

বাজারের ৫ কোম্পানির বোতল ও জারের পানি মানহীন ও পান... বিস্তারিত এখানে