সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০ ইং | ফাল্গুন ৫, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০ জামাদিউস সানি, ১৪৪১ হিজরি

বার্তাপ্রতিক্ষণ / বিনোদন / পপগুরু ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আজম খানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ ।

পপগুরু ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আজম খানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ ।

পপগুরু ও বীরমুক্তিযোদ্ধা আজম খানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ । ২০১১ সালের এই দিনে (৫ জুন) না ফেরার দেশে পাড়ি জমান তিনি।
যার হাত দিয়ে বাংলা গানের নতুন একটি ধারা উন্মোচিত হয়েছিল, তিনি আজম খান। আমাদের দেশে পপগানের ক্ষেত্রে তার হাতেই সূচনা হয়েছিল নতুন এক যাত্রাপথের। সে কারণেই দেশের সবাই একবাক্যে তাকে এ দেশের পপসংগীতের ‘গুরু’ হিসেবে বরণ করে নিয়েছেন।
দেশপ্রেমিক আজম খান বাংলা পপসংগীতের জনক শুধু গানের শিল্পী হিসেবেই নন, স্বাধীনতাযুদ্ধের অন্যতম একজন বীরযোদ্ধাও ছিলেন।

স্বাধীনতা-পরবর্তী সময়ে ১৯৭২ সালে লাকী আখন্দ ও হ্যাপি আখন্দ দুই ভাইকে নিয়ে ‘উচ্চারণ’ নামের একটি গানের দল গড়ার মধ্য দিয়েই পপসংগীতের পথে আজম খানের যাত্রা শুরু। সে বছরই বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত ‘এত সুন্দর দুনিয়ায় কিছুই রবে নারে’ ও ‘চার কালেমা সাক্ষী দেবে’- এই গান দুটি তাকে জনপ্রিয় করে তোলে। এরপর ‘ওরে সালেকা ওরে মালেকা’, ‘রেল লাইনের ঐ বস্তিতে’, ‘আসি আসি বলে তুমি আর এলে না’, ‘আলাল ও দুলাল’, ‘হারিয়ে গেছে খুঁজে পাব না’- এ গানগুলো গেয়ে শ্রোতাদের তিনি মাতিয়ে তোলেন।
১৯৫০ সালের ২৮ শে ফেব্রুয়ারি ঢাকার আজিমপুর কলোনির ১০ নম্বর সরকারি কোয়ার্টারে আজম খানের জন্ম। ১৯৮১ সালে ১৪ জানুয়ারি ৩১ বছর বয়সী আজম খানের সঙ্গে বিয়ে হয় সাহেদা বেগমের। আজম খান দুই মেয়ে এবং এক ছেলের জনক।

আরও পড়ুন

আহমেদ ইমতিয়াজ বুলবুল আর নেই

২২ জানুয়ারি ২০১৯

মুক্তিযুদ্ধের বীরসেনানী, প্রখ্যাত গীতিকার, সুরকার ও সংগীত পরিচালক আহমেদ ইমতিয়াজ... বিস্তারিত এখানে

কংগ্রেসের চল্লিশ বছর ধরে হারতে থাকা সিট উদ্ধারে কারিনা কাপুর!

২০ জানুয়ারি ২০১৯

ভুপালের যে আসনে গত প্রায় চার দশক ধরে হেরে আসছে... বিস্তারিত এখানে