http://knetter-gek.net/is-nooit-grappig-deel-5/ মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১, ২০২০ ইং | অগ্রহায়ণ ১৭, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৩ রবিউস সানী, ১৪৪২ হিজরি

বার্তাপ্রতিক্ষণ / স্বাস্থ্য বার্তা / বাসি ভাত খেয়ে কি বিপদ ডেকে আনছেন জানেন?

বাসি ভাত খেয়ে কি বিপদ ডেকে আনছেন জানেন?

visit here কর্মব্যস্ত জীবনে অথবা আলসেমির কারণে আমাদের মধ্যে অনেকেরই যে বদঅভ্যাস টা আছে তা হলো, আমরা অনেকেই একদিনে অনেকটা খাবার রান্না করে ফ্রিজে রেখে দেই। এবং তা দু-তিনদিন পর্যন্ত গরম করে করে খাই। তবে এটা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। কেননা খাবার বারবার গরম করা ঝুঁকিপূর্ণ। অন্যান্য খাবার হিসেব করে রান্না করা গেলেও ভাত হিসেব করে রান্না করা সবসময় সম্ভব হয় না। আর এখানেই প্রশ্ন আসে, ভাত পুনরায় গরম করে খাওয়া অথবা বাসি ভাত খাওয়াও কি ঝুঁকিপূর্ণ হতে পারে? যদি হয় তবে তার কারণ কি শুধুই আবার গরম করার পদ্ধতিটি, নাকি অন্য কিছু? চলুন এ ব্যাপারে জেনে নিই বিস্তারিত-

ভাত পুনরায় গরম করলে যা হয়

অনেকসময় দেখা যায়, ভাত একটু বেশিই রান্না হয়ে গেছে। অথবা ঘরের কোনো এক সদস্য হুট করে বাইরে থেকে খেয়ে চলে আসলেন। এক্ষেত্রে অনেকটা ভাত বেঁচে যায়। কিন্তু এই বেঁচে যাওয়া ভাত বারবার গরম করে খাওয়া কখনোই উচিৎ নয়।
পুষ্টিবিজ্ঞানের তথ্যানুসারে, ‘চালের কোষ তৈরি করতে পারে ‘ব্যাসিলাস সেরেয়াস’ নামক ব্যাকটেরিয়া, যা তৈরি করে বিষাক্ত উপাদান। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ব্যাকটেরিয়া চাল সিদ্ধ করে ভাত তৈরির পরও বেঁচে থাকতে পারে। এবং এই ভাত কক্ষ বা সাধারণ তাপমাত্রায় রেখে দিলে ব্যাকটেরিয়া বংশ বিস্তার করে, ফলাফল হয় খাদ্যে বিষক্রিয়া। আবার ভাত পাঁচ থেকে ৫৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় পুনরায় গরম করা হলে এই ব্যাকটেরিয়া সক্রিয় হয়ে ওঠে বলেও ধারণা করে থাকেন গবেষকেরা।

সমাধান

পুষ্টিবিদদের মতে, রান্না করা ভাত এক ঘণ্টার বেশি সময় কক্ষ তাপমাত্রায় রাখা উচিত নয়। রাখতে হবে ফ্রিজে, কাঁচ কিংবা ধাতব পাত্রে। তাপমাত্রা হতে হবে পাঁচ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে। আর প্রয়োজন অনুযায়ী গরম করে নিতে হবে।

তবে কতবার গরম করা নিরাপদ?

টাটকা খাবার খাওয়া সবসময়ই আদর্শ। তবে খাবারের অপচয় রোধ করতে ভাত সর্বোচ্চ একবার গরম করাই শ্রেয়। এর বেশি গরম করা হলে ভাত নষ্ট হয়ে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে। তাই ভাত রান্নার সময় একটু সতর্কতা অবলম্বন করে হিসেব করে রান্না করা উচিৎ যেন অনেকখানি ভাত নষ্ট না হয়।

পুনরায় গরম করার পদ্ধতি

বাসি-ভাত ফ্রিজ থেকে বের করার সঙ্গে সঙ্গেই গরম করতে হবে। পাশাপাশি ওই ভাত থেকে গরম বাষ্প উঠছে এমন অবস্থাতেই খেয়ে ফেলতে হবে। আর গরম করার সময় ভাত নাড়তে থাকতে হবে যাতে সবখানে তাপ সমানভাবে পৌঁছায়।

সংরক্ষণে সাবধানতা

রান্নার পর ভাত দ্রুত ঠাণ্ডা করতে পাত্র পরিবর্তন করতে হবে। এছাড়াও কয়েকটি ছোট অংশে ভাত ভাগ করে দেওয়ার মাধ্যমেও দ্রুত ঠাণ্ডা করা যায়। দ্রুত ঠাণ্ডা করলে ব্যাকটেরিয়া সক্রিয় হওয়া সম্ভাবনা কমে।

তাই ভাত খাওয়া নিয়েও সচেতন হোন। ছোটখাটো বিষয় নিয়ে হেলাফেলার কারণেও অনেক সময় অনেক বড় ধরণের ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

আরও পডুন মানসিক ভাবে সুস্থ থাকতে চাইলে…..

আরও পড়ুন

কোরবানিতে করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে যে নিয়মগুলো মেনে চলবেন-

৩১ জুলাই ২০২০

কোরবানিতে করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে চাইলে এই ১০ টা নিয়ম... বিস্তারিত এখানে

আলুর রসের উপকারিতা

২৫ জুলাই ২০২০

আলু আমাদের দৈনন্দিন জীবনের খাদ্য তালিকায় একটা অংশ। সবজি হিসেবে... বিস্তারিত এখানে