সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১৭, ২০২০ ইং | ফাল্গুন ৪, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ | ২০ জামাদিউস সানি, ১৪৪১ হিজরি

বার্তাপ্রতিক্ষণ / সংবাদ / জাতীয় / বিদেশে কতজন প্রবাসী বাংলাদেশী থাকে , আসুন জেনে নেই।

প্রবাসী

বিদেশে কতজন প্রবাসী বাংলাদেশী থাকে , আসুন জেনে নেই।

কাতারে বর্তমানে বাস করছেন প্রায় চার লাখের বেশি বাংলাদেশি। এই বিপুলসংখ্যক বাংলাদেশির মধ্যে কোন জেলার লোক সবচেয়ে বেশি, এর কোনো সঠিক হিসাব কোথাও নেই।

তবে বিএমইটির প্রকাশিত এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, ২০১৭ সালে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কাজের উদ্দেশ্যে সবচেয়ে বেশি কর্মী গেছেন কুমিল্লা থেকে। এটিই একমাত্র জেলা, যেখান থেকে লক্ষাধিক কর্মী কাজের উদ্দেশ্যে দেশ ছেড়েছেন।

২০১৭ সালে কুমিল্লা থেকে বিদেশে গেছেন এক লাখ ৫ হাজার ৩৮৬ জন। এর পরের অবস্থানে রয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া। ২০১৭ সালে এই জেলা থেকে বিদেশে গেছেন ৫৮ হাজার ১১১ জন।

জেলা হিসেবে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে চট্টগ্রাম। এই জেলা থেকে গত বছর কাজের উদ্দেশ্যে দেশ ছেড়েছেন ৫৮ হাজার ৭৫ জন।

বিএমইটির প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৭ সালে আরও যেসব জেলা থেকে হাজারো কর্মী কাজের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন দেশে গেছেন এর মধ্যে রয়েছে—ঢাকা থেকে ৪৮ হাজার ৩৯৬ জন, চাঁদপুর থেকে ৪১ হাজার ৭৮৫ জন, নোয়াখালী থেকে ৪০ হাজার ৮৬২ জন, টাঙ্গাইল থেকে ৩৯ হাজার ১৫৮ জন, কিশোরগঞ্জ থেকে ২৮ হাজার ৪০৯ জন, নরসিংদী থেকে ২৮ হাজার ২৯ জন, মুন্সিগঞ্জ থেকে ২৭ হাজার ১২২ জন, লক্ষ্মীপুর থেকে ২৬ হাজার ৭১২ জন, নারায়ণগঞ্জ থেকে ২৬ হাজার ১৯৩ জন, সিলেট থেকে ২৫ হাজার ৩৪৫ জন, ফরিদপুর থেকে ২৪ হাজার ৫৯১ জন, ফেনী থেকে ২৪ হাজার ৬৮ জন, ময়মনসিংহ থেকে ২২ হাজার ৮৪৬ জন, গাজীপুর থেকে ২১ হাজার ৯০১ জন, মানিকগঞ্জ থেকে ২০ হাজার ৫৬২ জন, কক্সবাজার থেকে ১৯ হাজার ৯৯৬ জন, হবিগঞ্জ থেকে ১৯ হাজার ২৭৪ জন, সুনামগঞ্জ থেকে ১৭ হাজার ১৩ জন, মৌলভীবাজার থেকে ১৬ হাজার ৬৩৭ জন, মাদারীপুর থেকে ১৫ হাজার ৬১১ জন, বগুড়া থেকে ১৪ হাজার ৯২০ জন, বরিশাল থেকে ১৪ হাজার ৬৪৯ জন, শরীয়তপুর থেকে ১২ হাজার ৯৪০ জন, পাবনা থেকে ১১ হাজার ২৬৩ জন, ঝিনাইদহ থেকে ১১ হাজার ১৬৬ জন, কুষ্টিয়া থেকে ১০ হাজার ৩৪৩ জন, যশোর থেকে ১০ হাজার ১৭ জন।

১০ হাজারের কমসংখ্যক কর্মী বিদেশে গেছেন যেসব জেলা থেকে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে—নওগাঁ থেকে নয় হাজার ৫৩৫ জন, জামালপুর থেকে নয় হাজার ১৮৪ জন, ভোলা থেকে নয় হাজার ৪৩ জন, রাজবাড়ী থেকে আট হাজার ৯৭৯ জন, পিরোজপুর থেকে সাত হাজার ৪২৬ জন, গোপালগঞ্জ থেকে ছয় হাজার ৮১৭ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ছয় হাজার ৬৮৭ জন, সিরাজগঞ্জ থেকে ছয় হাজার ৪৮৮ জন, মেহেরপুর থেকে ছয় হাজার ৪২৪ জন, বরগুনা থেকে ছয় হাজার ১৬৭ জন, বাগেরহাট থেকে পাঁচ হাজার ৭৪৪ জন, চুয়াডাঙ্গা থেকে পাঁচ হাজার ৫৫৯ জন, মাগুরা থেকে পাঁচ হাজার ২১৫ জন।

পাঁচ হাজারের কমসংখ্যক কর্মী বিদেশে গেছেন যেসব জেলা থেকে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে—নড়াইল থেকে চার হাজার ৯৮৮ জন, নেত্রকোনা থেকে চার হাজার ৯৮৭ জন, রাজশাহী থেকে চার হাজার ৬০০ জন, নাটোর থেকে চার হাজার ৫৮৬ জন, গাইবান্ধা থেকে চার হাজার ৫০৯ জন, পটুয়াখালী থেকে চার হাজার ৪৬০ জন, ঝালকাঠি থেকে চার হাজার ৪৫১ জন, খুলনা থেকে চার হাজার ৩১৩, সাতক্ষীরা থেকে চার হাজার ১৩ জন, রংপুর থেকে তিন হাজার ৩৩১ জন, জয়পুরহাট থেকে তিন হাজার ৬৬ জন, দিনাজপুর থেকে দুই হাজার ৮০৮ জন, কুড়িগ্রাম থেকে দুই হাজার ৫৬৫ জন, শেরপুর থেকে দুই হাজার ৪৪৬ জন, নীলফামারী থেকে এক হাজার ৫৮৩ জন, ঠাকুরগাঁও থেকে এক হাজার ২৮৫ জন।

সর্বশেষ এক হাজারেরও কম কর্মী বিদেশে গেছেন চারটি জেলা থেকে। এগুলো হলো—লালমনিরহাট থেকে ৭৯৮ জন, বান্দরবান থেকে ৬৩৩ জন, পঞ্চগড় থেকে ৬৩০ জন এবং রাঙামাটি থেকে ৪৭৮ জন।

আরও পড়ুন

প্রবাসী শ্রমিকরা বেশি মারা যাচ্ছেন স্ট্রোক- হৃদরোগে

২২ জানুয়ারি ২০১৯

প্রবাসে কর্মরত শ্রমিকদের মৃত্যুর এ হার প্রতি বছরই বাড়ছে। পরিসংখ্যান... বিস্তারিত এখানে

বন্ধ করা যাবে চুরি যাওয়া ফোন

২১ জানুয়ারি ২০১৯

বিটিআরসি মোবাইল হ্যান্ডসেটের তথ্য নিয়ে একটি ডেটাবেইজ চালু করতে যাচ্ছে,... বিস্তারিত এখানে