মঙ্গলবার, মার্চ ২, ২০২১ ইং | ফাল্গুন ১৮, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ১৬ রজব, ১৪৪২ হিজরি

বার্তাপ্রতিক্ষণ / আলোচিত খবর / মধ্যবিত্তের গাড়ি

মধ্যবিত্তের গাড়ি

মধ্যবিত্তের চাহিদায় রিকন্ডিশন্ড গাড়িই স্থান দখল করে রাখে। কেননা কাঁড়ি কাঁড়ি অর্থ ব্যয় করে ব্র্যান্ড নিউ গাড়ি কেনার সামর্থ্য অনেকেরই নেই। আবার বিত্তবান লোকমাত্রই খোঁজখবর রাখেন নতুন কোন মডেল বাজারে এসেছে, কী কী ফিচার থাকছে এসব গাড়িতে ইত্যাদি বিষয়ে। সব মিলিয়ে নতুন গাড়ি নাকি পুরনো গাড়ি কিনবেন, সেটা অনেকাংশেই নির্ভর করে গ্রাহকের আর্থিক অবস্থার ওপর। তবে গাড়ি নতুন কিংবা পুরনো, যেটাই কেনেন না কেন, খেয়াল রাখুন কিছু বিষয়ে—

ধরুন, বাজারে এসেছে নতুন মডেলের একটি গাড়ি। বাজারদর, সৌন্দর্য, এর ফিচার— সবই আপনার চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম। কিনে ফেলার সিদ্ধান্ত প্রায় নিয়েই ফেলেছেন, সেক্ষেত্রে একটু ভেবে দেখুন তো গাড়িটির যন্ত্রাংশ স্থানীয়ভাবে সহজলভ্য কিনা? যদি এর উত্তর না হয়, তাহলে সে গাড়িটি না কেনাই আপনার জন্য ভালো হবে। কারণ পরবর্তীতে শখের এ গাড়িই হয়তো আপনাকে ভোগাবে। সেক্ষেত্রে অভিজ্ঞ কারো সাহায্য নিতে পারেন। পছন্দের গাড়িটির মডেল সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারেন ইন্টারনেটের মাধ্যমেই।

অর্থ সাশ্রয়ের জন্যই মূলত লোকে পুরনো গাড়ির দিকে ঝোঁকে। কিন্তু যদি এমনটা হয়, আপনার হাতে পর্যাপ্ত টাকা রয়েছে, তাহলে পুরনো গাড়ি না কিনে নতুন কেনাই ভালো। আবার নগদ অর্থ এবং গাড়ির লোন— সব মিলিয়েও যদি নতুন গাড়ি কেনার সক্ষমতা অর্জন করে থাকেন, তাহলে নতুন গাড়িই ভালো। কেননা বিশেষজ্ঞদের মতে, পুরনো গাড়ি হয়তোবা সাময়িকভাবে আর্থিক সহায়তা দেবে কিন্তু দীর্ঘস্থায়ী সমাধান দিতে অক্ষম। পুরনো গাড়ির ক্ষেত্রে যেহেতু বিক্রয়োত্তর সেবা পাওয়া যায় না, তাই সুবিধার দিক থেকে এটি পিছিয়ে।

সব ধরনের হিসাব-নিকাশের পর যদি এমন হয়, বাজেটের মধ্যে দামি ব্র্যান্ডের পুরনো গাড়ি কেনা সম্ভব, যে অর্থ দিয়ে অন্য কোনো ব্র্যান্ডের নতুন গাড়িও কেনা যাবে, তাহলে দ্বিতীয় অপশনটি বেছে নেয়াই ভালো। অর্থাৎ বিভিন্ন দিক বিবেচনায় পুরনো গাড়ি থেকে নতুন গাড়ি কেনাই লাভজনক।

তাই বলে এমনটা ভাবার কারণ নেই যে রিকন্ডিশন্ড গাড়ি কেনা মানেই টাকা জলে ঢেলে দেয়া। বরং খানিকটা সময় নিয়ে দেখেশুনে পুরনো গাড়ি কিনলে আর্থিক সুবিধা পাবেন।

পুরনো গাড়ি কেনার আগে খুব ভালোভাবে পুরো গাড়ি পরীক্ষা করে নেয়া উচিত। কিছু সাধারণ বিষয় মাথায় রাখুন— গাড়ির মাইলেজ ওয়ারেন্টি বুঝে নিন, গাড়ির ইন্টেরিয়র, ফ্যাব্রিক ইত্যাদি ঠিক রয়েছে কিনা, গাড়ির বিষয়ে বোঝেন ভালো এমন কাউকে সঙ্গে রাখুন। যন্ত্রাংশ সব ঠিকঠাক রয়েছে কিনা এবং তেলের ট্যাংকে ছিদ্র রয়েছে কিনা, সেটা খেয়াল করুন। শুধু তাই নয় সম্ভব হলে টেস্ট ড্রাইভ দেয়ার সময় খানিকটা বেশি সময় নিন। এতে কোনো ত্রুটি থাকলেও সেটা চোখে পড়তে সময় লাগবে না।

আরও পড়ুন

ফাহিম সালেহের খুনি চিহ্নিত, সন্দেহে ব্যবসায়িক লেনদেন

১৬ জুলাই ২০২০

নৃশংসভাবে খুন হওয়া তরুণ উদ্যোক্তা পাঠাওয়ের সহপ্রতিষ্ঠাতা ফাহিম সালেহ ও... বিস্তারিত এখানে

দশ দিনের রিমান্ডে রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান সাহেদ

১৬ জুলাই ২০২০

রিজেন্ট গ্রুপ ও রিজেন্ট হাসপাতাল লিমিটেডের চেয়ারম্যান সাহেদ করিম ওরফে... বিস্তারিত এখানে