সোমবার, মার্চ ২৫, ২০১৯ ইং | চৈত্র ১১, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ | ১৬ রজব, ১৪৪০ হিজরি

বার্তাপ্রতিক্ষণ / মেরিনার্স কর্নার / ২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ পেল ২ নাবিকের পরিবার

২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ পেল ২ নাবিকের পরিবার

জাহাজ দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেশি ক্ষতিপূরণ আদায় করে নজীর স্থাপন করেছে বাংলাদেশী নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান এসকে ইঞ্জিনিয়ারিং। চীনে অগ্নিকাণ্ডে ডুবে যাওয়া ইরানি জাহাজের বাংলাদেশী দুই নাবিককে ২ কোটি টাকারও বেশি ক্ষতিপূরণ প্রদান করা হয়েছে। গতকাল নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী দুই নাবিকের পরিবারের হাতে ক্ষতিপূরণের টাকা তুলে দেন।

গত বছরের ৬ জানুয়ারি চীনের পূর্ব উপকূলে এক লাখ ৩৬ হাজার টন তেল ইরান থেকে নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার পথে সিএফ ক্রিস্টাল নামের একটি পণ্যবাহী জাহাজের সাথে সংঘর্ষে বিস্ফোরিত হয় পানামার পতাকাবাহী এমটি সানচি নামের তেলবাহী ট্যাংকার। এসময় তেলবাহী ট্যাংকারের দুই বাংলাদেশী নাবিকসহ মোট ৩২ জন নিহত হন।
বাংলাদেশের দুইজনের মধ্যে হারুন চট্টগ্রামের মীরসরাইয়ের ও সাজিব আলী মৃধা রাজবাড়ির বাসিন্দা। জাহাজটির রিক্রুটিং এজেন্ট এসকে ইঞ্জিনিয়ারিং শিপিং এন্ড ট্রেডিং চেষ্টা করে নিহত দুই নাবিকের জন্য ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করে।

 জাহাজের ইরানি মালিক চট্টগ্রামে এসে দুই নাবিকের পরিবারকে ক্ষতিপূরণের টাকা প্রদান করেন। গতকাল দুই নাবিকের পরিবারের হাতে ২ কোটি ০৬ লাখ ৯৭ হাজার ৬৭৮ টাকা তুলে দেয়া হয়। নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী টাকার চেক তুলে দেন। এসময় নৌ-পরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমোডর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম, চিফ নটিক্যাল সার্ভেয়ার ক্যাপ্টেন জসিম উদ্দিন সরকার এবং এস.কে ইঞ্জিনিয়ারিং-এর চেয়ারম্যান এম.এ মান্নান ও পরিচালক ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ শাহ আলম উপস্থিত ছিলেন। এটি মুলত দুই নাবিকের বীমার টাকা বলে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানিয়েছে।

মেরিটাইম লেবার কনভেনশন ২০০৬ অনুযায়ী কোনো নাবিক চাকরিরত অবস্থায় মারা গেলে ক্ষতিপূরণ পান। এর ভিত্তিতে নাবিক হারুনের পরিবারকে এক কোটি ১৯ লাখ ৫৯ হাজার ১৩৩ টাকা এবং সজীবের পরিবারকে ৮৭ লাখ ৩৯ হাজার ২০৫ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়। 

আরও পড়ুন

আটলান্টিক মহাসাগরে ডুবল বিলাসবহুল গাড়ি ভর্তি জাহাজ

২১ মার্চ ২০১৯

আটলান্টিক মহাসাগরে বিলাসবহুল গাড়ি ভর্তি ইতালিয়ান একটি কন্টেইনার জাহাজে ভয়াবহ... বিস্তারিত এখানে

স্বপ্ন যখন মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং

০৪ মার্চ ২০১৯

বর্তমানে প্রচলিত পড়াশোনার বাইরে অনেক শিক্ষার্থী ব্যতিক্রমী বিষয়ে পড়াশোনা করতে... বিস্তারিত এখানে